logo
news image

পদ্মার চরের ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ

লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি
নাটোরের লালপুরে পদ্মার চরের ক্ষুদে শিক্ষার্থীসহ শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন।
বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি ২০২২) বিকেলে পদ্মা নদীর দক্ষিণ লালপুরের চরের ‘আলোর দরজা শিশু বিদ্যা নিকেতন’ বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিক্ষার্থীসহ এলাকার অর্ধশতাধিক শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীমা সুলতানা। স্কুলের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় উৎসাহ যোগাতে প্রাক-প্রাথমিকের বই উপহার দেওয়া হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাম্মী আক্তার, প্রাকীর্তি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক জালাল উদ্দিন বাবু, সাপ্তাহিক লালপুর বার্তার সম্পাদক এ এম রায়হান প্রমুখ।
প্রাকীর্তি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক জালাল উদ্দিন বাবু বলেন, লালপুর ইউনিয়নের চরলালপুরের ৪টি গ্রামে প্রায় ৭০০ পরিবার বাস করেন। পদ্মার চরে বসবাসকারী এসব পরিবারের শিশুরা শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত। কিছু শিশু চর থেকে নদী পেরিয়ে পদ্মার তীরবর্তী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। কিন্তু বর্ষা ও বন্যার সময়সহ বছরের প্রায় ৫ মাস নদীতে পানির প্রবাহ বেশি থাকায় তারা বিদ্যালয়ে আসতে পারে না। বাবা-মা দুর্ঘটনার ভয়ে সন্তানদের একা ছাড়েন না। যার ফলে শতকরা প্রায় ৫০ভাগ শিশু ঝরে পড়ে শিক্ষার সুযোগ বঞ্চিত হয়।
এই শিক্ষা সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের পাশে দাঁড়ায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রাকীর্তি ফাউন্ডেশন। পদ্মা নদীর দক্ষিণ লালপুরের চরে সংগঠনটি নিজস্ব অর্থায়নে ঘর নির্মাণ করে ‘আলোর দরজা শিশু বিদ্যা নিকেতন’ নামে বিদ্যালয় পরিচালনা করছে। শিক্ষক হিসেবে রয়েছেন মোছা. বিউটি খাতুন ও মো. জসিম উদ্দিন।
শিক্ষক মোছা. বিউটি খাতুন বলেন, বিদ্যালয়ে ৩৫ জন শিশু শিক্ষার্থী রয়েছে। চরের শিশুদের এই বিদ্যালয়ের মাধ্যমে হাতেখড়ি হয়। সরকারি সহায়তা পেলে সেবার মান আরো বাড়ানো সম্ভব।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top