logo
news image

ঈশ্বরদীতে চাকুরির ভূয়া রিক্রুটিং এজেন্ট প্রতিষ্ঠানের ৩ প্রতারক গ্রেফতার

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
ঈশ্বরদীতে পুলিশের যৌথ অভিযানে ভূয়া রিক্রুটিং প্রতিষ্ঠানের ৩ প্রতারক গ্রেফতার হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শহরের সোনালী ব্যাংকের পাশে বিশ্বাস ভবনের ৩য় তলায় ফাবিহা এন্টারপ্রাইজ লি: নামের ভূয়া রিক্রুটিং প্রতিষ্ঠানে এই অভিযান পরিচালিত হয়। পাবনার ডিবি, ঈশ্বরদী থানা ও আমবাগান পুলিশ ফাঁড়ি যৌথভাবে এই অভিযান পরিচালিত করে।


পাবনার পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খানের নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মাসুদ করিম এই অভিযানে নের্তৃত্ব দেন। এসময় ফাবিহা এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম (৩২), এমডি রফিকুল ইসলাম (৪৫) এবং জিএম নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবীর, থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান আসাদ, ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক শহীদুল ইসলামসহ ডিবি ও পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা অভিযানে অংশগ্রহন করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবীর জানান, ফাবিহা এন্টারপ্রাইজ লি: নামে প্রতিষ্ঠান খুলে আটককৃতরা চাকুরি দেয়ার নামে প্রতারণা করছিল। চেয়ারম্যান ও এমডিসহ ৩ জন গ্রেফতার হয়েছে।

ওসি আসাদুজ্জামান মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে জানিয়ে বলেন, ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে যৌথভাবে অভিযান পরিচালিত হয়। গত তিন বছরে প্রতিষ্ঠানটি রিক্রুটিং এজেন্ট সেজে হাজার হাজার বেকার যুবককে প্রতারিত করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। যার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

পরিদর্শক শহীদুল ইসলাম জানান, অনলাইনে এবং ফেসবুকে বিভিন্ন নামী-দামী কোম্পানী ও রূপপুর প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরির ভূয়া বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে রিক্রুটিং এজেন্ট ফাবিহা এন্টারপ্রাইজের সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়। বাস্তবে বিজ্ঞপ্তির কোন অস্তিত্ব নেই। চাকুরি প্রার্থিরা এলে প্রথমে পাঁচ শত টাকা ফরম পূরণের জন্য নেয়া হয়। পরে এজেন্ট প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওযার জন্য তিন হাজার টাকা গ্রহন করে বলা হয়, সিরিয়ালি ডেকে নিয়োগ দেয়া হবে। কিন্তু পরে আর কোনদিনই ডাকা হয় না। এভাবেই চক্রটি প্রতারণা করে আসছিল।

সাম্প্রতিক মন্তব্য