logo
news image

বড়াইগ্রামে সুদি মহাজনের চাপে যুবকের আত্তহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম নাটোর

নাটোরের বড়াইগ্রামে সুদি মহাজন অব্যহত চাপ সহ্য করতে না পেরে শামীম হোসেন (২৬) নামের যুবকের  আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার মাঝগাঁও ইউনিয়নের আটুয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  শামিম ওই গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে।
মৃত শামীমের খালু লোকমান হোসেন বলেন, শামিম ৬ মাস আগে রাথুরিয়া গ্রামের মৃত পোলান সরকারের ছেলে সেকেন্দার আলীর নিটক থেকে ১০ হাজার টাকা সুদে ঋণ নেয়। দুই মাসে ২ হাজার টাকা পরিশোধ করে। বাঁকী টাকা পরিশোধ করতে না পেরে মহাজনের চাপে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। সম্প্রতি বাড়ি ফিয়ে আসলে মহাজন আবারো চাপ সৃষ্টি করে। পরে উপায় না দেখে মঙ্গলবার সন্ধায় গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে বাড়ী সংলগ্ন মাঠে পড়ে থাকেন। স্বজনরা উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালেনিয়ে গেলে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই মারা যায় শামীম।
নানী সুফিয়া বেগম বলেন, আমার বাড়িতে পালিয়ে থাকা অবস্থায় ৫/৬ টি মটর সাইকেল নিয়ে এসে হুমকি ধামকি দেয় সেকেন্দারেরা। মা রানী বেগম বলেন, মহাজন বিভিন্ন ভাবে আমার ছেলেকে ধাওয়া করে। ভয়ে আমার ছেলে পালিয়ে ছিল, অবশেষে সে আতœহত্যা করতে বাধ্য হলো।
স্থানীয় কাউন্সিলর দুলাল হোসেন বলেন, সেকেন্দার একজন সুদি মহাজন। ১০ হাজার টাকা সুদাসলে ২০ হাজার টাকা নিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু সেকেন্দার রাজি হয় না হয়ে ৭০ হাজার টাকা দাবী করে আসছিলো। 
বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, কেউ থানায় অভিযোগ করে নাই। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য