logo
news image

সংবাদ প্রকাশের পর লক্ষীকুন্ডার অবৈধ বালুমহালে জেলা প্রশাসনের অভিযান

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
রবিবার বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশের পর ঈশ্বরদীর লক্ষীকুন্ডায় ৩টি বালুমহালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিশেষ অভিযান পরিচালিত হয়েছে। অভিযানের সময় বালু কাটার ৭টি ভেকু মেশিন ও ১টি ট্রাক অকেজো করা হয়েছে। বালু কাটার সাথে জড়িত শ্রমিক ও কর্মচারীরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে গ্রেফতার বা জরিমানা আদায় করা যায়নি। আর নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে নদী ও চর থেকে বালু উত্তোলনের প্রভাবশালী দুষ্টচক্রটিও ধরা-ছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে। তাদেরও গ্রেফতার করা যায়নি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার পি এম ইমরুল কায়েস অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সোমবার দুপুরের দিকে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা পুলিশ ও পাবনার র‌্যাপব-১২কে নিয়ে এই অভিযান পরিচালিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বায়োজিদ আকন্দসহ আরো একজন ম্যাজিষ্ট্রেট  এবং তিনি নিজে এই অভিযানে অংশগ্রহন করেন। অভিযানের খবর আগেই পৌঁছে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।  তিনি আরো বলেন, লক্ষীকুন্ডা, দাদাপুর ও বিলকেদারে ৩টি বালু মহলে অভিযান চালানো হয়। এসময় বালু কাটার ৭টি ভেকু মেশিন ও ১টি ট্রাক অকেজো করে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৩রা জানুয়ারী দৈনিক ইত্তেফাকসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইনে ‘লক্ষীকুন্ডায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছে, হুমকিতে চরাঞ্চলের আবাদি জমি’ শিরোনামে খবর প্রকাশিত হয়।

সাম্প্রতিক মন্তব্য