logo
news image

আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের লেখক তালিকাভুক্ত হলেন মির্জা গোলাম সারোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক।।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অধীন আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের লেখক হিসেবে ২০২০ সালে তালিকাভুক্ত হয়েছেন সাবেক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ড. মির্জা গোলাম সারোয়ার পিপিএম।
তিনি ১৯৫৬ সালের ২ এপ্রিল দিনাজপুর জেলার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। পিতা মির্জা সিরাজুল ইসলাম ও মাতা ফেরদৌসী বেগম। নাটোরের লালপুরের বাসিন্দা শেফালী ইয়াসমিনের সাথে ১৯৮৪ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাঁদের কন্যা ডা. মির্জা ফারহানা নাসরিন উর্মি এবং এক পুত্র ডা. মির্জা শামীম রেজা সাহেদ শুভ।
তিনি দিনাজপুর ও পাবনা জেলা স্কুল, পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এবং ঢাকাবিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন।
তাঁর প্রকাশিত বই সমুহ: ১. এই তো জীবন-২০১৭, ২. কুয়াশার  আবরনে-২০১৮, ৩. এক চিলতে রোদ্দুর-২০১৮, ৪. আঁধার পেরিয়ে-২০১৮, ৫. গেদু মামার যত কান্ড-২০১৮, ৬. দেখা হলো দু'জনে-২০১৮, ৭. স্বপ্নগুলো দুঃস্বপ্ন হয়ে যায়-২০১৮, ৮. শেষ বিকেলের গল্প-২০১৮, ৯. হৃদয়ের না বলা কথা-২০১৮, ১০. এক পুলিশের কাহিনি-২০১৯, ১১. বৃষ্টি ভেজা স্বপ্ন-২০২৯, ১২. স্মৃতির আবরনে-২০১৯, ১৩. মেঘের আড়ালে-২০১৯, ১৪. এক পুলিশের অসমাপ্ত কাহিনি-২০২০, ১৫. অচেনা ছায়া-২০২০, ১৬. মুখোশ-২০২০, ১৭. বৃদ্ধাশ্রম-২০২০, ১৮.  গল্পগুলো ছোটদের-২০২০, ১৯. ছোটদের গেদু মামা, ২০. আকাশে ভালোবাসার নীড়-২০২০, ২১. গেদু মামার ছড়া-২০২০, ২২. শেষবিকেলে-২০২০. ২৩. ছোটদের মজার ছড়া-২০২০। এছাড়া আরো ৩টি বই প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে।
তিনি ঢাকাবিশ্ববিদ্যালয়ের এলামোনাই এ্যাসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য, বাংলাদেশ সাহিত্য পরিষদের প্রশাসক, বহমান অন লাইন পত্রিকার ও দৈনিক প্রাপ্তি প্রসঙ্গ পত্রিকার উপদেষ্টা।
তিনি ১৯৯২ সালে ‘রাষ্ট্রপতি পদক প্রাপ্ত হন। ২০১৩-২০১৪ সালে জাতিসংঘের শান্তি রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য হিসেবে সুদানের দারফুর প্রদেশের রাজধানী নিয়ালায় স্কোয়াড কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে জাতিসংঘ পদক পান।  র‌্যাব-৫ এ চাকরিকালীন সেরা কোম্পানি কমান্ডার নির্বচিত হন এবং ভাল কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৫ সালে ‘আইজি পদক’ পান। তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অধীন আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের লেখক হিসেবে ২০২০ সালে তালিকাভুক্ত হন।
তিনি ২০১৬ সালে পুলিশের চাকুরী থেকে অবসর গ্রহন করার পর তার প্রথম লিখা বই এক পুলিশের কাহিনী ২০১৭ সালে প্রকাশিত হয়। এই বই প্রকাশের পর থেকে তার লিখালিখি জগতে অভিষেক ঘটে। বই লিখার পাশাপাশি তিনি জাতীয় পত্রিকা গুলোর ভিতর দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক সমকাল, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনসহ বিভিন্ন পত্রিকায় বিভিন্ন বিষয়ে সম্পাদকীয়তেও লিখালিখি করেন। তিনি বাংলাদেশ পুলিশের এক অনন্য লেখক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন।
ড. মির্জা গোলাম সারোয়ার আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের লেখক হিসেবে তালিকাভুক্ত হওয়ায় দৈনিক প্রাপ্তি প্রসঙ্গ পরিবারের পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়েছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top