logo
news image

প্রেমিকার স্বজনরা ঈশ্বরদীতে প্রেমিককে পিটিয়ে হত্যা করেছে

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
ঈশ্বরদীতে হৃদয় খান (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্র তাঁর প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গেলে প্রেমিকার স্বজনরা তাকে হাত-পা বেঁধে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত হৃদয় খান সাঁড়া ইউনিয়নের মাজদিয়া গ্রামের ইসলামপাড়ার আব্দুল হালিমের ছেলে। প্রেমিকার স্বজনরা কৌশলে মোবাইলে হৃদয়কে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ জানিয়েছেন। রবিবার দুপুরের দিকে ঈশ্বরদী শহরের সাঁড়া গোপালপুর তালতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, হৃদয় খানের সাথে সাঁড়াগোপালপুর তালতলা এলাকার খোদেজা খাতুন নামে এক কিশোরীর প্রেমের সম্পর্কের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হৃদয়কে পিটিয়ে হত্যা করেছে। শনিবার দু’জনের প্রেমের সম্পর্কের কথা জানাজানি হলে খোদেজার পরিবারের লোকজন রবিবার দুপুরে হৃদয়কে মোবাইলে  কৌশলে ডেকে আনে। তারা বাড়ির পাশে বাঁশঝাড়ে হাত-পা বেঁধে লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে হৃদয়কে গুরুতর আহত করে। পরে অবস্থা বেগতিক দেখে হৃদয়কে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে পালিয়ে যায়।  নিহতের স্বজনদের মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ হৃদয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলে জানা গেছে।
এব্যাপারে থানার অফিসার আনচার্জ সেখ নাসীর উদ্দিন জানান, ঈশ^রদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবীরসহ তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। প্রেমিকার স্বজনরা মোবাইলে কৌশলে হৃদয়কে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছে বলে জানতে পেরেছি। সোমবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাবনায় পাঠানো হবে। ঘটনার পর হত্যাকারীরা পালিয়েছে। তবে আসামী গ্রেফতারের জন্য পুলিশী অভিযান চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সাম্প্রতিক মন্তব্য