logo
news image

নিয়ম মেনেই পাকশী বিভাগে চলছে আন্তঃনগর ট্রেন

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
শর্তসাপেক্ষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথানিয়মে চলছে রেলওয়ের পাকশী বিভাগে ৬টি আন্তঃনগর যাত্রীবাহী ট্রেন। বৃহস্পতিবার এই বিভাগের বৃহত্তম ঈশ্বরদী জংশন ষ্টেশনে সরেজমিনে যেয়ে সরকার ঘোষিত সামাজিক দুরুত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি রক্ষার নিয়ম মানার বিষযটি পরিলক্ষিত হযেছে। যাত্রীদের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, মাস্ক ব্যবহার, তাপমাত্রা পরিমাপ ও জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটানোর সকল ব্যবস্থা বিদ্যমান ছিল ।
দেখা যায়, সকালে রাজশাহী হতে ছেড়ে আসা  গোয়ালন্দঘাট অভিমূখি ৭৫৬ নম্বর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৯টা ১০ মিনিটে প্রবেশ করে এবং খুলনা থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী ৭১৫ নম্বর আন্তঃনগর কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনটিও ১১টার দিকে ঈশ্বরদী জংশন ষ্টেশন থেকে যথাসময়ে ছেড়ে যায়। ট্রেনের সংখ্যা কম থাকায় কোন ট্রেনই বিলম্বে চলাচল করছে না বলে ঈশ্বরদী জংশন ষ্টেশনের ম্যানেজার মহিউল ইসলাম জানিয়েছেন। এই ট্রেনগুলো ঈশ্বরদী ষ্টেশনে প্রবেশের অনেক আগে থেকেই রেলওয়ের অধিক সংখ্যক টিটিই এবং টিসিদের প্রস্তুত থাকতে দেখা গেছে। সহযোগীতার জন্য বিপুল সংখ্যক রেল পুলিশ এবং রেল নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের উপস্থিতি ছিল। কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি বন্ধ। অনলাইনে অর্ধেক টিকিট বিক্রি হয়েছে। যাত্রীদের তাপমাত্রা পরীক্ষা, পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা মাস্ক ব্যবহার ও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ট্রেনে উঠানো হচ্ছে। ঈশ্বরদী জংশনে যাত্রা বিরতির সময় বেশী থাকায় ট্রেনগুলো স্টেশনে প্রবেশের পরপরই রেল কর্মচারীরা সকল কামড়ার দরজা জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে পরিস্কার করছেন।
পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) ফুয়াদ হোসেন আনন্দ জানান, প্রথম দিনে বরাদ্দের কম সংখ্যক টিকিট বিক্রি হয়েছে। তবে ৪ঠা জুন প্রতিটি ট্রেনের সবকটি টিকিট বিক্রি হয়েছে। বিনা টিকিটের কোন যাত্রী যাতে ভ্রমণ করতে না পারে এজন্য কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
 করোনা পরিস্থিতিতে টানা ১ মাস ১১ দিন বন্ধ থাকার পর ঈশ্বরদী জংশনের উপর দিয়ে বিভিন্ন রুটে এখন ৬টি যাত্রীবাহী আন্তঃনগর ট্রেন এখন চলাচল করেছে। গত ৩১শে মে হতে এই বিভাগে প্রথম চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকা-চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ এবং খুলনা-ঢাকা-খুলনাগামী ‘চিত্রা এক্সপ্রেস’ ট্রেন চালু হয়। ৩রা জুন পাকশী বিভাগে ‘খ’ শ্রেণীভুক্ত আরো ৪টি আন্তঃনগর রাজশাহী-গোয়ালন্দ-রাজশাহী ‘মধুমতি এক্সপ্রেস’, রাজশাহী-খুলনা-রাজশাহী ‘কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস’, বেনাপোল-ঢাকা-বেনাপোল ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ খুলনা-চিলাহাটি-খুলনাগামী ‘রূপসা এক্সপ্রেস’ ট্রেন চালু হয়েছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য