logo
news image

ঈশ্বরদীতে নয় মাসের শিশুকে গলাটিপে হত্যা

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিশোধ নিতে ঈশ্বরদীর গ্রামে প্র্রতিবেশীর নয় মাসের শিশুকণ্যা আভিয়া খাতুনকে গলাটিপে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। হত্যার পর শিশুটিকে পাশের একটি ডোবার পানিতে ফেলে গুম করার চেষ্টা করা হয়। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের বাবুলচরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গভীর রাতে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ এক নারীকে আটক করেছে। শিশু আভিয়া বাবুলচরা গ্রামের আনছারুল মন্ডলের মেয়ে।
স্থানীয়রা এবং পুলিশ জানায়, সোমবার বিকেলে শিশুটির মা মিলি খাতুন শিশু মেয়ে আভিয়াকে দুধ খাওয়ানোর পর ঘরে ঘুম পাড়িয়ে রেখে রান্না করতে যায়। এসময় ফাঁক বুঝে প্রতিবেশি সোহানের স্ত্রী সাদিয়া খাতুন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে গলাটিপে নৃশংস ভাবে হত্যা করে। হত্যার পর বাড়ির অদূরে একটি মুরগির খামারের পাশের ডোবায় ফেলে দেয়। মা লিলি ঘরে গিয়ে সন্তানকে বিছানায় না দেখে খোঁজাখুঁজি করেও কোথাও না পেয়ে স্থানীয় মসজিদে মাইকিং করান। পরে বিষয়টি ঈশ্বরদী থানায় জানানো হয়। খবর পেয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) অনবিন্দ সরকার পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে রাত দেড়টার দিকে ডোবা থেকে লাশ উদ্ধার করেন।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, এলাকায় বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে শিশু আভিয়া হত্যার রহস্য উন্মোচিত হয়েছে। অভিযুক্ত সাদিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঈশ্বরদী থানায় হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য