logo
news image

ঈশ্বরদী প্রথম করোনা সনাক্ত বাড়ি লকডাউন

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
ঈশ্বরদীতে  রেহানুল করিম রেবিন (৫১) নামে  করোনা আক্রান্ত এক রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। সে মুলাডুলি ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের মৃত শওকত আলী মাষ্টারের ছেলে। ঈশ্বরদী উপজেলা প্রশাসন তাঁর বাড়ি  লকডাউন করে দিয়েছেন।
জানা যায়, রেহানুল করিম রেবিন নাটোর জেনারেল হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটারের সিনিয়র স্টাফ নার্স।  ওই হাসপাতালে আরো কয়েকজন স্বাস্থ্য কর্মী করোনায় আক্রান্ত। রেহানুল করিমের নমুনা পরীার জন্য কয়েকদিন আগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।  শুক্রবার তাঁর ফলাফল পজেটিভ আসে। রেহানুল করিম বাড়ি থেকেই নাটোরে যাতায়াত করতেন। তাঁর করোনার কোন উপসর্গ ছিলো না।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, রেহানুল করিম শুক্রবার চাঁদপুর মোল্লাপাড়া মসজিদে জুম্মার জানাজ আদায় করেন। তাঁর নতুন বাড়ি উদ্বোধনের জন্য তিনি শুক্রবার ইফতার ও দোয়ার আয়োজন করেছিলেন। তাঁর নিকট আত্মীয়স্বজনকে তিনি দাওয়াতও দেন। বিকালে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিহাব রায়হান বাড়ির সামনে উপস্থিত হয়ে হ্যান্ডমাইকের মাধ্যমে বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে তিনি মসজিদও লকডাউনের ঘোষণা দেন। এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকগণ ও থানা পুলিশের সদস্যবৃন্দ। পরে মসজিদের ঈমান মাইকের মাধ্যমে মসজিদ লকডাউনের বিষয়টি এলাকাবাসীকে অবহিত করেন।
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এফ এ আসমা খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রেহানুল করিম রেবিন একজন স্বাস্থ্য কর্মী। করোনার কোন উপসর্গ ছিলো না। নাটোরে করোনা স্যাম্পুল পাঠানোর সংখ্যা কম হওয়াতে সেখান থেকে এমনিতেই তাঁর নমুণা পাঠানো হয়। পরে ফলাফল পজেটিভ এসেছে। তাঁর বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। শনিবার ওই বাড়ির ১৮ জন সদস্যের নমুণা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য