logo
news image

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজে অগ্রগতি

স্বপন কুমার কুন্ডু, ঈশ্বরদীঃ
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজে অভূতপূর্ব অগ্রগতি হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির মাঝেও এগিয়ে চলছে সরকারের অন্যতম অগ্রাধিকারভিত্তিক রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের নির্মান কাজ। মূল রিএ্যাক্টর বসানোর কাজ বছরের শেষ নাগাদ শুরু হচ্ছে বলে জানা গেছে।
প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর প্রকল্পের কাজে অভূতপূর্ব অগ্রগতি হচ্ছে জানিয়ে বলেন, প্রথম ইউনিটের অভ্যন্তরীন কন্টেইনমেন্টের নির্মানের তৃতীয় ধাপে ১২টির মধ্যে ৭ম প্রি-স্ট্রেসড্ মাউন্টিং বøক স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। উল্লেখ্য, তৃতীয় ধাপে ১৪.৫ মিটার নির্মানের কাজ চলছে। ইতোপূর্বে দুই ধাপে ২০ মিটারের নির্মান সম্পন্ন হয়েছে। অভ্যন্তরীন কন্টেইনমেন্টের মোট উচ্চতা হবে ৬১.৭ মিটার। তিনি বলেন, ইতোপূর্বে মাটির নীচে ৩০ মিটার কাঠামোর নির্মান সম্পন্ন হবার পর স্থাপিত হয়েছে কোর ক্যাচার। বিদ্যুৎকেন্দ্রের স্বয়ংক্রিয় আধুনিক প্রযুক্তির নিরাপত্তা ব্যবস্থার একটি গুরুত্বপূর্ন অংশ এই কোর ক্যাচার। একইসাথে এগিয়ে চলছে বহিঃস্থ কন্টেইনমেন্টের নির্মান কাজ। এটির উচ্চতা হবে ৬৪.৫ মিটার।
তিনি আরো জানান, রাশিয়া থেকে আসার পর চলতি বছরেই প্রথম ইউনিটে রিয়্যাক্টর ইন্সটলেশন কাজ শুরু হবে। করোনা পরিস্থিতি প্রসংগে তিনি বলেন, রূপপুর প্রকল্প সাইটে বাংলাদেশ সরকার ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসরণ করে প্রকল্প কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহন করেছে।
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র রুশ সরকারের কারগরি ও আর্থিক সহায়তায় নির্মিত হচ্ছে। রাশিয়ার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এটমস্ট্রয়এক্সপোর্ট ও ১৬টি উপ-ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানে চুক্তিভিত্তিক কাজ করছেন। এই প্রকল্পে বিদেশী কর্মী-বিশেষজ্ঞ রয়েছেন দুই হাজারের অধিক যার মধ্যে অধিকাংশই রাশিয়ান। প্রকল্পটিতে দু'টি ইউনিট থাকবে, প্রতিটিতে স্থাপিত হবে সর্বাধুনিক ৩+ প্রযুক্তির ভিভিইআর- ১২০০ রিয়্যাক্টর। কেন্দ্রটির মোট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা হবে ২,৪০০ মেগা-ওয়াট।

সাম্প্রতিক মন্তব্য