logo
news image

বড়াইগ্রামে হালিমার রহস্যজনক মৃত্যু লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি।।
নাটোরের বড়াইগ্রামে হালিমা খাতুন নামে এক ১২ বছরের শিশু কন্যার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় লাশ উদ্ধার করেছে বড়াইগ্রাম থানা পুলিশ।
রবিবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার চান্দাই ইউনিয়নের গারফা মৎস্যজীবী পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত হালিমা খাতুন চান্দাই ইউনিয়নের গারফা দাখিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ও একই এলাকার হাসেন আলীর মেয়ে।
অভিযোগ উঠেছে, হালিমা খাতুনকে সাতৈল বিলের ভিতর একটি ব্রীজের ওপর ধর্ষন করে হত্যা করেছে প্রেমিক লাদেন আলী। পরে আত্মহত্যার নাটক সাজিয়ে গলায় ওড়না পেচিয়ে গাছের সাথে লাশ ঝুলিয়ে রাখে হত্যাকারীরা, বলে দাবী করেন নিহতের পরিবার।
এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, রাত ১০টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয় হালিমা খাতুন। এরপর রাত ১১টার সময় প্রেমিক লাদেন আলী চিৎকার করে বলতে থাকে ’’হালিমা খাতুন আত্মহত্যা করেছে’’।  লাদেন আলীর ডাক চিৎকারে ঘটনাস্থলে দিয়ে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় হালিমা খাতুনের ঝুলন্ত লাশ দেখতে দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী। এ বিষয়ে বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলীপ কুমার দাস জানান- সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে, তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
তবে হালিমা খাতুনের পিতা হাসেন আলী অভিযোগ করে বলেন, প্রতিবেশি লাদেন আলীর ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে আমার মেয়ে লাশ হয়ে ফিরলো। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top