logo
news image

সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক।  ।  
প্রথাগত কাজের পাশাপাশি উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা স্থায়ীকরণে অর্থনৈতিক ও অবকাঠামোগত উন্নতিসহ সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সুযোগমতো অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশের অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে সরকারকে সহযোগিতায় সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। এ লক্ষ্যে একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
সোমবার (২৮ অক্টোবর) নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় কাদিরাবাদ সেনানিবাসে ইঞ্জিনিয়ার সেন্টার এন্ড স্কুল অব মিলিটারী ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ৭ম কর্নেল কমান্ড্যান্ট অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন সেনা প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।
সেননাবাহিনী প্রধান বলেন, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কোন অব ইঞ্জিনিয়ার্সের ইতিহাস ঐতিহ্যময় ও বীরত্ব গাঁথায় সমুজ্জ্বল। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এই কোর আপন মহিমা, স্বকীয়তা ও কর্মগুণে ইতোমধ্যে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হয়েছে। কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় ক্রমাগত উন্নতির সোপানে আরোহন করে চলছে। সেনাবাহিনীর উন্নয়নের পাশাপাশি দেশ গঠনমূলক কর্মকান্ডে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে।’
দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের ভূমিকা উল্লেখ করে সেনা প্রধান বলেন, কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের সৈনিকবৃন্দ স্বাধীনতা ও সার্বোভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলের সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন এবং বৈশ্বিক পরিবেশ রক্ষার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলে মেরিন ড্রাইভ নির্মাণের মাধ্যমে ভূয়সী প্রসংসা অর্জন করেছে। বিভিন্ন জাতীয় মহাসড়ক প্রকল্প, ঢাকা মহানগরীর হাতিরঝিল এলাকায় সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্প, যানজন নিরসনে মহানগরীতে সড়ক অবকাঠামো নির্মাণসহ এয়ারপোর্ট রোডস্থ আন্ডারপাস, মিরপুল ফ্লাইওভার, রুমা ও থানচি ব্রীজ নির্মাণ, উখিয়া- রামুতে বৌদ্ধ বিহার নির্মাণসহ সংস্কার এবং পদ্মা বহুমুখী সেতুর সংযোগ সড়কসহ সেতু রেলওয়ে লিংক প্রজেক্টের গুরুত্বপূর্ন জাতীয় প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন করছে সেনাবাহিনী।
কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সকে অন্যতম প্রধান ‘সাপোর্টিং আর্মস’ মন্তব্য করে সেনা বাহিনীর এই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও সদিচ্ছায় সেনাবাহিনীর সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়নের কাজ শুরু হয়েছে। এই বাহিনীর উন্নয়নে আগামী দিনেও সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’
কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের ‘কর্ণেল কমান্ড্যান্ট’ পদে অভিষিক্ত করায় কোরের সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সে সদস্যবৃন্দ মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। গৌরবোজ্জল সেই ইতিহাস চেতনায় ধারণ করে আগামীর অগ্রযাত্রায় সকলকে শামিল হতে হবে।’
প্যারেড অনুষ্ঠানে সেনা বাহিনীর উর্দ্ধতন সামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ, নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহীদুল ইসলাম বকুল, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এ কে এম হাফিজ আক্তার বিপিএম বার, নাটোরের জেলা প্রশাসক মোহম্মদ শাহরিয়াজ, পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহাসহ অসামরিক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং ইঞ্জিনিয়ার কোরের সামরিক ও অসামরিক সদস্যগণ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনীর বগুড়া এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাইফুল আলম, কাদিরাবাদ সেনানিবাসের কমান্ড্যান্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আশরাফুল ইসলাম, অবসরপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল হারুন-অন-রশীদসহ উধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ, অসামরিক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং ইঞ্জিনিয়ার কেরের সামরিক ও বেসামরিক সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় সেনাপ্রধান কাদিরাবাদ সেনানিবাসের প্যারেড গ্রাউন্ডে পৌছালে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের একটি চৌকস দল সেনা প্রধানকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন। পরে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের জ্যেষ্ঠ অধিনায়ক এবং জ্যেষ্ঠ সুবেদার মেজর সেনা প্রধানকে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের ‘কর্নেল কমান্ড্যান্ট’ এর র্যাংক ব্যাজ পরিয়ে দিলে তিনি সদস্যদের উদ্দেশ্যে দরবার গ্রহণ করেন। দরবার শেষে কর্ণেল কমান্ড্যান্ট কোয়ার্টার গার্ড পরিদর্শন করেন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top