logo
news image

পদ্মার পানি বৃদ্ধিতে দিশেহারা লালপুরের কৃষক

নিজস্ব প্রতিবেদক।  ।  
নাটোরের লালপুরে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধিতে শত শত একর জমির ফসলেরর ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। লালপুরের পদ্মা নদীর জেগে ওঠা আবাদী জমিতে কৃষকরা নানা ফসল চাষ করেছে। নদী ভাঙ্গা মানুষের মধ্যে জেগে ওঠা চরে আবাদকৃত ফসলই তাদের চোখে আনান্দ জোগায়।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত ৪/ ৫ দিনে পদ্মায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নওসারা সুলতানপুর, দিয়াড়শঙ্করপুর, চাকলা বিনোদপুর, আরাজি বাকনাই, রসুলপুর, বাকনাই, বন্দোবস্তগোবিন্দপুর, লালপুর চরসহ শত শত একর জমির মুলা, পুঁইশাক, কলা, বেগুন, সিম, লাউ, পটল, পিয়ারা, পিয়াজ, আখ পানিতে ডুবে গেছে। ফলে এ এলাকার কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। মোহরকয়া ভাঙ্গাপাড়া গ্রামের কৃষক জিল্লুর রহমান বলেন, অনেক আশা নিয়ে ১ বিঘা ২ কাটা জমিতে মুলা চাষ করেছি, এখন কি করবো বুঝতে পারছিনা। নওসারা সুলতানপুরের কৃষক আবজাল জানান, তার ২৭ বিঘা জমিতে আখের মধ্যে পানি গেছে, পানি নেমে যাওয়ার পর আখ মাড়াই বা সুগার মিলে দিতে না পারলে না খেয়ে মরতে হবে।
বিলমাড়ীয়া ইউনিয়নের উপ- সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মো: সেলিম জানান, আমার কর্মএলাকায় প্রায় ৩ শ একর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে, আমি স্যারকে জানিয়েছি।
বিলমাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিন্টু বলেন, আমার এলাকার ৫/৭ টি চরের আবাদকৃত ফসলিই জীবনজীবিকার একমাত্র সম্বল। তা পানিতে ডুবে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি হয়ে গেল। কৃষকদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন। আমি উপজেলা চেয়ারম্যান, নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে জানিয়েছি।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top