logo
news image

বিশ্বজয়ে ১৩১তম দেশ গুয়াতেমালায়

নাজমুন নাহার সোহাগী।।
নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি থেকে রওনা হলাম মধ্য আমেরিকার দেশ গুয়াতেমালায়। সাথে ১৬ কোটি মানুষের লাল সবুজের একটি পতাকা আর দশ কিলোর ছোট্ট একটি ব্যাকপ্যাক। আজ আমি বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকা হাতে পা রাখব গুয়াতেমালার এন্টিগুয়া শহরে। এটি হবে আমার ১৩১ তম দেশ। নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি থেকে রওনা হচ্ছি ইন্টারজেট এয়ারলাইন্সের 2995 নম্বর ফ্লাইটে। মাঝে মেক্সিকোর 'অ্যারোপয়ের্তো ইন্টারন্যাশনাল দ্য লা সিউডাড ডি মেক্সিকোতে' ৬ ঘন্টার ট্রানজিট। আজ গুয়াতেমালার সময় রাত দশটায় আমার অভিযাত্রার ১৩১ তম দেশে পা রাখবো। গুয়াতেমালা থেকে সড়কপথে আমার অভিযাত্রা চলতে থাকবে সালভাদর, হন্ডুরাস, নিকারাগুয়া, কোস্টারিকা হয়ে সামনের দিকে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।
বিশ্ব ভ্রমণের আরেকটি মাইলফলক নিয়ে ফিরবো সবার কাছে।
"আমি প্রতিটি স্বপ্নের ভেতর নিজেকে বিহঙ্গের মত উড়াই। তারপর আমি সত্যি সত্যি দেখি আমি উড়ছি সীমান্ত থেকে সীমানা ছাড়িয়ে। আমি চেতনার মাঝে ভাবি আমার কোন দেওয়াল নেই।তারপর আমি ঘর থেকে বেরিয়ে দেখি ভোরের কিরণ, মুক্ত বাতাস, অচেনা সব নগরীর ইতিহাস, মনুষ্যজাতির সম্ভাবনার সব গল্প। তাইতো পর্বতে, মরুতে, সমুদ্রের তলদেশে, আর অচেনা সব মানুষের ভিড়ে আমি বারবার জেগে উঠছি, বারবার শিখছি, মুক্ত করছি নিজেকে অসম্ভব সকল পথ পেরিয়ে। তাইতো আমি বারবার বিচরণ করছি পৃথিবীর এক পথ থেকে আরেক পথে নির্ভয়ে একা একা।
আমি চার দেয়ালের মাঝে বসে থেকে ভয় পেয়ে মরতে শিখিনি, এই পৃথিবীর প্রতিটি সীমানা জয় করতে করতে আমি যদি কখনো মরে যাই তোমরা জেনে রেখো আমি সকল শেকল ভেঙ্গে একটি পৃথিবী জয় করার জন্য মরেছি বাংলাদেশের পতাকা হাতে। মানুষের অপার শক্তিকে জয় করার জন্য মরেছি এই পৃথিবীর কোন এক সীমান্তে।"
বিশ্বজয়ে বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকা আজ উড়বে ১৩১তম দেশ গুয়াতেমালায়।
১১.০৯.২০১৯

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top