logo
news image

পলওয়েল পার্ক ও এসপি আলমগীর

প্রাপ্তি প্রসঙ্গ ডেস্ক।।
সৃজনশীল মনমানসিকতা, উদ্ভাবনী ক্ষমতা আর অদম্য ইচ্ছাশক্তি থাকলেই যে অসাধ্য কে সাধন করা যায় তারই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বর্তমান পলওয়েল পার্কের রুপকার, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর কবীর, পিপিএম-সেবা।
অনিন্দ্য সুন্দর সবুজ রাঙ্গামাটির প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত পলওয়েল পার্ক। পার্কটির প্রতিটি পরতে পরতে সৃজনশীলতার ছোঁয়া। নির্মাণশৈলীতে অনন্য পার্কটির প্রতিটি দৃশ্যপট ও বসার স্থান। পার্কটির প্রবেশে ভূতুড়ে পাহাড়ের গুহা, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী ঢেঁকি শিল্প, বিভিন্ন প্রকারের রাইড, প্যাডেল বোট, কলসি ঝরনা, কৃত্রিম ঝরনা, মজাদার ও মুখরোচক খাবারের সমারোহ সমৃদ্ধ পলওয়েল ক্যাফেটেরিয়া, হিল ভিউ পয়েন্ট, লেক ভিউ পয়েন্ট, ফিশিং পিয়ার, লাভ পয়েন্ট, সুইমিংপুল ও কটেজ পার্কটিকে পূর্ণতা দিয়েছে। প্রতিদিন দুর-দুরান্ত থেকে আগত দর্শনার্থী ও স্থানীয় জনসাধারণের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠে এই পার্ক।
গত ১৮ মার্চ ২০১৮ খ্রিস্টাব্দে, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহন করেন মোঃ আলমগীর কবীর, পিপিএম-সেবা। দায়িত্বভার গ্রহনের পরপরই পলওয়েল পার্কের সংস্কারে নিজেকে মনোনিবেশ করেন। নিজের চিন্তাশক্তি, বাস্তব অভিজ্ঞতা, গঠনমূলক দিকনির্দেশনা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টার মাধ্যেমে খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যে পার্কটিকে নবরুপে গড়ে তুলেছেন। পুলিশ সুপার মহোদয় ও জেলার প্রত্যেক পুলিশ সদস্যদের কঠোর পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে পলওয়েল পার্ক তার বর্তমান রুপ ধারণ করেছে।
সকাল বা বিকাল, দিন বা রাত যখনই সময় পেয়েছেন পুলিশ সুপার মহোদয় পার্কে ছুটে গিয়েছেন। পার্কের কার্যক্রম তদারকির সময় নিজে কখনো হাতে কোদাল নিয়েছেন, ইটে গাথুনী দিয়েছেন, গাছ লাগিয়েছেন, গাছের পরিচর্চা করেছেন, কাজের প্রতি মনোবল ঠিক রাখার জন্য পুলিশ সদস্যদের সাথে গল্প করেছেন।
যতদিন থাকবে আলাউদ্দিন-লিমার ভালোবাসার নিদর্শন লাভ পয়েন্ট, যতদিন থাকবে কাপ্তাই লেকের পাশে পলওয়েল পার্ক, পলওয়েল কটেজ ততদিন স্মরণীয় হয়ে থাকবেন পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর কবীর, পিপিএম-সেবা।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top