logo
news image

একযুগ পর ডিসেম্বরে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় সমাবর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক, শাবি।  ।  
একযুগ পর ঘোষিত হয়েছে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) তৃতীয় সমাবর্তনের তারিখ। চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় সমাবর্তন।
মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা যায়, গত ১৪ মে একাডেমিক কাউন্সিলের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  সমাবর্তন উদযাপন উপলক্ষে ১৮ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে সভাপতি ও রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ইশফাকুল হোসেনকে সদস্য সচিব করে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।
কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন- কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন, জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, কৃষি ও খনিজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, ভৌত বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, ব্যবস্থাপনা এবং ব্যবসা প্রশাসন অনুষদের ডিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধানবৃন্দ, আইআইসিটির পরিচালক, আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের পরিচালক, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক, প্রক্টর, হিসাব পরিচালক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, প্রধান প্রকৌশলী।
এছাড়া সমাবর্তন বাস্তবায়ন উপলক্ষে বিভিন্ন উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপ-কমিটিগুলো হলো, সমাবর্তন ও সাজ-সজ্জা উপ-কমিটি, ব্যবস্থাপনা উপ-কমিটি, অভ্যর্থনা উপ-কমিটি, সমন্বয় ও মনিটরিং উপ-কমিটি, ফিন্যান্স, বাজেট ও স্পন্সর উপ-কমিটি, কস্টিউম তৈরি ও সংগ্রহ বিষয়ক উপ-কমিটি।
১৯৯১ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর মাত্র দুইবার সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৯৯৮ সালের ২৯শে এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন আয়োজন করেন তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক এম হাবিবুর রহমান। এর ঠিক নয় বছর পর ২০০৭ সালের ৬ ডিসেম্বর দ্বিতীয় সমাবর্তন আয়োজন করেন তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমিনুল ইসলাম। ১৯৯১-৯২ শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০০০-২০০১ শিক্ষাবর্ষ পর্যন্ত দুই বারে সর্বমোট ১০টি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা সমাবর্তন পেয়েছেন। এরপর ২০০১-০২ শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০১৪-১৫ পর্যন্ত মোট ১৪টি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা সম্মান সম্পন্ন করেছেন, তারা এখনো সমাবর্তন পায়নি।
এদিকে কিছুদিন আগে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানিয়েছিলেন, দীর্ঘদিন সমাবর্তন না হওয়ায় একটি বিরাট সংখ্যক শিক্ষার্থী সমাবর্তনের অপেক্ষায় রয়েছে। যার ফলে এই বিরাট সংখ্যক শিক্ষার্থীর এক সাথে সমাবর্তন দেওয়া সম্ভব নয়। দুইভাগে সমাবর্তন দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের সঙ্গে কথা বলে ডিসেম্বরে সমাবর্তনের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। তৃতীয় সমাবর্তনে ২০০১-২০০২ শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষ পর্যন্ত গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে এবং আগামী বছর সম্ভাব্য চতুর্থ সমাবর্তনে বাকি শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে। আগস্ট থেকে রেজিস্ট্রেশন শুরু করা হবে জানিয়েছিলেন তিনি।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top