logo
news image

সাস্ট ক্লাব নির্বাচন: সহসভাপতি প্রার্থীদের স্বপ্ন

নিজস্ব প্রতিবদেক।  ।  
আগামী ১৯ জুলাই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সংগঠন সাস্ট ক্লাব লিমিটেডের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন। রাজধানীর নিকেতনে ক্লাবের কার্যালয়ে ওই দিন বিকেল ৩.০০ টা থেকে সন্ধ্যা ৭.০০ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সাস্ট ক্লাবের নির্বাচনে ১১টি পদে মোট ২৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সহ-সভাপতি পদের প্রার্থী হলেন আশরাফ হোসেন আকন্দ (০১৯৪) ও মোহাম্মদ কায়সার তালুকদার (০৪৫১)।
সহসভাপতি প্রার্থীদের স্বপ্ন-
আশরাফ হোসেন আকন্দ (০১৯৪):
সহ-সভাপতি পদপ্রার্থী আশরাফ হোসেন আখন্দ, ৩য় ব্যাচ, পদার্থ বিজ্ঞান।
আচ্ছালামু আলাইকুম। সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। সাস্ট ক্লাব গঠন ও এর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধিতে যারা অবদান রেখে যাচ্ছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি সাস্টিয়ান প্রায় সকল অনুভুতির সঙ্গে ছিলাম, আছি এবং থাকব।
আমার কিছু অঙ্গীকার  আপনাদের সানুগ্রহ  বিবেচনার জন্য উপস্থাপন করলাম-
১) সকলের  পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে ক্লাবকে একটি center of excellence হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এজন্য সকলের সঙ্গে আলোচনাক্রমে work plan প্রণয়ন করা হবে;
২) ক্লাবের কার্যালয় বতর্মান অবস্থান  থেকে সকলের যাতায়াত সুবিধা  ও ক্লাবকে অধিকতর প্রাণবন্ত করার জন্য সুবিধাজনক স্থানে  স্থানান্তরের উদ্যোগ নেওয়া হবে;
৩) ক্লাবের আয় বৃদ্ধিকরণে(সদস্য ফি ব্যতিত) নতুন বৈধ উৎসের সন্ধান ও এর কার্যকর বাস্তবায়ন করা হবে;
৪) সকলের ভোটাধিকার কোম্পানি আইন মেনে নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেওয়া হবে;
৫) সাস্ট ক্লাব লি. এর কার্যালয় স্থায়ীভাবে স্থাপিতকরণে ফান্ড সৃষ্টির উদ্যোগ নেওয়া হবে;
৬) ক্লাবের বিনোদনমূলক সেবা ও সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে;
৭) নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত করা হবে; এবং
৮) প্রশাসনিক ও আর্থিক ব্যবস্থাপনায় সুশাসন নিশ্চিত করা হবে।
মোহাম্মদ কায়সার তালুকদার (০৪৫১):
সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত:
আমি ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ষ্ট ব্যাচের ছাত্র। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রবস্থায়া আমি বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে যুক্ত ছিলাম। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পর্ব শেষ করে আমি লন্ডনে চলে যাই সেখানে বিখ্যাত ইনিভার্সিটি অব লন্ডনের অধীনে এল.এল.বি (অনার্স) শেষ করে লন্ডনের সিটি বিশ্ববদ্যালয়ে বার ভকেশনাল কোর্স করি এবং ঐতিহ্যবাহী লিন্সনস ইন থেকে ব্যারিস্টার এট ল ডিগ্রী লাভ করি । বার এট ল কোর্স সম্পন্ন করে আমি বাংলাদেশে ফেরত এসে দেশের স্বনামধন্য ল চেম্মারে কাজ করি। সেই সাথে আই.এল. ও. এবং জাতিসংঘসহ দেশি বেদেশী ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার সাথে আইনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করি। বর্তমানে আমার সেগুন বাগিচা ও বনানীতে চেম্বার রয়েছে।
সাস্ট ক্লাব নির্বাচন:
আমার বর্তমান পরিচয় একজন আইনজীবি হলেও আমার আসল পরিচয় আমি একজন সাস্টিয়ান। সাস্ট ক্লাব এখন একটি ভিত্তির উপর দাড়িয়ে আছে। এই ভিত্তিটাকে মজবুত, সার্বজনীন ও টেকসই করতে হলে এর গঠনতন্তর বিভিন্ন ধারা-উপধারার পরিবর্তন, সংযোজন, বিয়োজনসহ অনেক আইনী কাজ রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি কিংবা সরকারের বিভিন্ন সংস্থার সাথে অনেক দেন দরবার, আলোচনা ও চুক্তিতে আবদ্ধ হওয়ার সময় এখন। সাস্ট ক্লাবকে একটি প্রাতিষ্ঠাানিক রূপ দেওয়ার জন্য বর্তমান প্রতিষ্ঠাকালীন সময়টি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতার। বিভিন্ন শর্তের বেড়াজাল ভেদ করে সাস্ট ক্লাবের স্বার্থস্বরক্ষণে এই মুহুর্তে একজন আইনজীবি অতিব গুরুত্বপূর্ণ ভমিকা পালন করতে পারেন। আমি মনে করি সাস্ট ক্লাবের এই পর্যায়ে আমি আমার পেশাগত অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা কাজে লাগিয়ে ক্লাবে যাবতীয় স্বার্থ স্বরক্ষণ করে ক্লাবটি এটি সুদৃঢ় প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে পারব। তাই আমি আসন্ন সাস্ট ক্লাব নির্বাচন, ২০১৯ এ আমি একজন সহ সভাপতি প্রার্থি। আমি সকলের দোয়া, সমর্থন ও সহযোগিতা প্রত্যাশী।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top