logo
news image

বড়াইগ্রামে দুই পৌরসভায় কর্মবিরতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম নাটোর
রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতার দাবীতে নাটোরের বনপাড়া ও বড়াইগ্রাম পৌরসভার কর্মকর্তারা নিজ নিজ পৌরসভার সামনে বসে ৪৮ ঘন্টার কর্মবিরতি পালন করছেন। অনেক আগে থেকে শুরু হওয়া আন্দোলন মাঝে উচ্চ পর্যায়ের আশ্বাসে স্থগিত রাখা হয়েছিল। সেই আশ্বাসে ভরসা না পেয়ে আবারও তারা আন্দোলনে নেমেছেন।
এরই ধাবাবাহিকতায় নাটোরের বনপাড়া ও বড়াইগ্রাম পৌরসভার সকল কর্মকর্তা কর্মচারী সোমবার সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত পৌরসভার সকল সেবা বন্ধ রেখে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে। তাদের দাবি পৌরসভা স্বায়িত্ব শাসিত হওয়ায় নিজেদের আয়ে বেতন ভাতা সময় মত পরিশোধ হয়না। তাই সরকারের প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হয়ে সরকারী কোষাগার হতে বেতন ভাতা ও পেনশন চালু করতে হবে। 
আন্দোলনকারীরা ১ জুলাই নিজ পৌরসভায় এবং ২ জুলাই নাটোর প্রেস ক্লাবের সামনে কর্মবিরতি ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করবেন।
বনপাড়া পৌরসভায়  সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হামিদ শেখ, সাধারণ সম্পাদক আকুল হোসেন জানান, আমরা নিরলস ভাবে পৌরবাসির জন্য কাজ করে মাস শেষে বেতন ভাতা নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগি। এর ফলে আমাদের পরিবার পরিজন সকলেই অশান্তিতে থাকতে হয়। তাই অবিলম্বে আমাদের রাষ্ট্রিয় কোষাগার থেকে বেতন ভাতা ও পেনশন চালু করতে হবে। অন্যথায় এবার আরও বড় ধরণের কর্মসূচি ঘোষনা করা হবে।
এদিকে হঠাৎ করেই পৌরসভার সকল কর্মকর্তা কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করায় পৌরসভায় সেবা নিতে এসে ফেরত যাচ্ছে পৌর নাগরিকরা।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top