logo
news image

ব্রি-ধান৭৪ জাতের ধান চাষে কৃষকদের প্রশিক্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক লালপুর (নাটোর)।  ।  
নাটোরের লালপুর ও রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় বোরো মৌসুমের ব্রি-ধান৭৪ জাতের ধান চাষে প্রদর্শনী প্লটের ৭৫ জন কৃষককের প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে। হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশ ও নাটোরের লালপুর উপজেলার বে-সরকারী উন্নয়ন সংস্থা আভা ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি’র যৌথ উদ্যোগে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। জিংক সমৃদ্ধ ব্রি-ধান৭৪ বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট এর উদ্ভাবিত বোরো জাতের ধান। ১২ ফেব্রুয়ারী নাটোরের লালপুর উপজেলার আড়বাব ইউনিয়নের বোয়ালিয়াপাড়া গ্রামে, ১৩ ফেব্রুয়ারী রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার গন্ডগোহালী ও ১৪ ফেব্রুয়ারী পুঠিয়ার পালোপাড়া গ্রামে ২৫ জন করে মোট ৭৫ জন কৃষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। আড়বাবে প্রধান অতিথি ছিলেন লালপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা  শেখ মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ, পুঠিয়ার গন্ডগোহালী ও পালোপাড়ায় প্রধান অতিথি ছিলেন পুঠিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো: কামরুল ইসলাম। তিনটি কর্মশালাতেই বিশেষ অতিথি ছিলেন হারভেস্ট প্লাস বাংলাদেশ এর কুষ্টিয়া অঞ্চলের  এআরডিও সাইফুল ইসলাম, হারভেস্ট প্লাস প্রকল্পের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর সাইফুল ইসলাম রবি এবং আভা ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি’র প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর আব্দুর রউফ। এই ধানের  জীবন কাল ১৪৫-১৪৭ দিন। চারার বয়স ৩০ থেকে ৩৫ দিন হলে ২০X১৫ সে.মি. দূরত্বে প্রতি গুছিতে ১/২ টি করে চারা লাগাতে হয়। প্রতি বিঘায় ২৫/৩০ মন ধান উৎপাদন করা সম্ভব। ব্রি-ধান৭৪ জাতের ধান বোরো মৌসুমের ফসল।
জিংক সমৃদ্ধ ব্রি-ধান৭৪ এর চাউলে বাচ্চাদের শারীরিক গঠণ ও মানসিক বিকাশে সহায়তা করে। এছাড়া মানব দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top