logo
news image

বাগাতিপাড়ায় সেতুর অভাবে ২০টি গ্রামের দুর্ভোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগাতিপাড়া (নাটোর)।  ।  
নাটোরে বাগাতিপাড়ায় জামনগর বড়াল ঘাট দু'জেলার সংযোগস্থল। এ ঘাট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এখানে বড়াল সেতু নির্মানের দাবী এলাকাবাসির।কিন্তু দীর্ঘ দিনেও দাবী পূরণ হয়নি। বিভিন্ন সময়ে দেওয়া জন প্রতিনিধিরা তাদের প্রতিশ্রুতি রাখেননি। নদী পারাপারে জনদুর্ভোগ বেড়েই চলছে। দ্রুত সেতু নির্মাণে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন বিশিষ্ট জনেরা। জানা যায়, জামনগর বড়াল ঘাটটি অত্যন্ত জন গুরুত্বপূর্ণ । এ ঘাট দু'জেলার সংযোগস্থল। এর উত্তর পাশে নাটোরের বাগাতিপাড়া ও দক্ষিণ পাশে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা সীমানা। অন্তত ২০টি গ্রামের লোক এ ঘাট ব্যবহার করে। এখান থেকে বাঘার বড় ব্যবসা কেন্দ্র আড়ানি বাজারের দূরত্ব দেড় কিলো মিটার ও বাগাতিপাড়ার জামনগর বাজারের দূরত্ব ৭শ’ মিটার। অপর দিকে ঘাট থেকে নাটোর শহরের দূরত্ব ১৫ কিলো মিটার। আড়ানি এলাকার বড় ব্যবসায়িরা পুঠিয়া ও ঝলমলিয়া ঘুরে নাটোর শহরে মালামাল আনা-নেয়া করে। এতে অতিরিক্ত ১০ কিলো মিটার পথ অতিক্রম করতে হয়। বাগাতিপাড়ার জামনগর, বাঁশবাড়িয়া, কৈচরপাড়া, দোবিলা, মুন্সিপাড়া, মাঝপাড়া, কৈপুকুরিয়া, চৌধুরীপাড়া, শাহপাড়া, পালপাড়া, কুঠিপাড়া, মোল­াপাড়া, হাপানিয়া ও বাঘার আড়ানি, চকরপাড়া, হামিদকুড়া, ঝিনা গোচর, কুশাবাড়িয়া, বেড়ের বাড়ি, বাউশা, পিয়াদাপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন পেশাজীবির লোকজন এ বড়াল ঘাট ব্যবহার করেন। ব্যবসায়িরা নানা পণ্য আনা-নেয়া করে। এখানে শুস্ক মৌসুমে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের চরাট এবং বর্ষা মৌসুমে ছোট্ট নৌকা ভরসা। লোকজন যাতায়াত ও পণ্য আনা-নেয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহায়। অহরহ চরাট ভেঙ্গে ও পানিতে নৌকা ডুবে ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়। অথচ একটি সেতু বদলে দিতে পারে ওই বিশটি গ্রামের ভাগ্য। এলাকাবাসি জানান, একাধিক বার ঘাটের দুপাশে মাটির স্তর পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় ভাল ফলাফল এসেছে। উভয় এলাকার জনপ্রতিনিরা বড়াল সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু প্রতিশ্রুতি রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছেন। এখানে সেতু নির্মাণ দুই উপজেলাবাসির প্রাণের দাবী।
বাঘা এলাকার আড়ানি সরকারি মনোমহনী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাহিদ হোসেন জানান, বড়াল সেতু নির্মাণ হলে বাঘা সদর ও নাটোর শহরের দুরত্ব কমবে দশ কিলো মিটার। গোচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মিনারা জানান, সেতু নির্মাণ হলে যাতায়াত সুবিধার পাশাপাশি ঘাটের দুপাশে দোকান পাট গড়ে উঠবে। জামনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস জানান, বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার। এ সরকারের মেয়াদে বড়াল সেতু নির্মাণ হবে বলে তিনি আশা করেন। মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসি।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top