logo
news image

কুষ্টিয়ায় নিখোঁজের ৮ ঘন্টা পর শিশুর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া।  ।  
কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর দাসপাড়া থেকে তিন মাসের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাত ৯টায় এ লাশ উদ্ধার করা হয়। শিশুটির নাম মুক্তা। সে দাসপাড়া এলাকার মানিক দাসের মেয়ে। এর আগে একই দিন বেলা দুপুর সাড়ে বারটার দিকে বাড়ির বারান্দা থেকে হারিয়ে যায়।
মুক্তার পরিবার ও কুষ্টিয়া মডেল থানা সূত্র জানায়, মুক্তার বাবা মানিক স্থানীয় আলামপুর বাজারে জুতা সেলাইয়ের কাজ করতে যান। মানিকের স্ত্রী মেয়ে মুক্তাকে ঘরের বারান্দার মেঝেতে ঘুম পাড়িয়ে প্রতিবেশীর বাড়িতে যায়। সেখানে আর কোন পরিবারের সদস্য ছিল না। বেলা পৌনে একটায় বাড়িতে ফিরে মুক্তাকে আর খুঁজে পান না। খবর পেয়ে সেখানে কুষ্টিয়া মডেল থানার পুলিশ যায়। এলাকায় অভিযান চালিয়ে, মুক্তার কোন খোঁজ পায় না। কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দীনের ভাষ্যমতে, খবর পাওয়ার পরপরই ওই এলাকায় গিয়ে ব্যাপক অভিযান চালানো হয়। এলাকাটা খুবই জনবসতি এবং ঘিঞ্জি। পরে রাত ৯টায় খবর পান মানিকের বাড়ির পেছনে টিউবয়েলের পাশে মুক্তাকে পড়ে থাকতে দেখে এক নারী। মুক্তার নাকে রক্ত দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এবং এটা শত্রুতা বসত করে লাশ ফেলে রেখে গেছে। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখনও কাউকে আটক করা হয়নি। অভিযান চলছে। বুধবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
এদিকে একমাত্র শিশু মেয়েকে হারিয়ে মানিকসহ তার স্ত্রী কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top