logo
news image

পরীক্ষা কেন্দ্রে কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা।  ।  
এসএসসি পরীক্ষার কারণে আগামী ২৭ জানুয়ারি থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি এক মাস বন্ধ থাকবে দেশের সব কোচিং সেন্টার। রোববার (২০ জানুয়ারি) মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষা-২০১৯ উপলক্ষে জাতীয় মনিটরিং ও আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি।
তিনি বলেন, প্রশ্নপত্র এলুমিনিয়াম ফয়েল প্যাকে (aluminum foil pack) থাকবে। পরীক্ষার আশেপাশে ১৪৪ ধারা জারির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা থাকবে। গুজব রটনাকারীদের সনাক্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সদ্য দায়িত্ব নেয়া শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, আমরা জঙ্গি দমন করতে পেরেছি। মাদক দমনেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তাই প্রশ্ন ফাঁসও আমরা ঠেকাতে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। তিনি বলেন, আগামী এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় আমরা বেশকিছু ব্যবস্থা নিয়েছি। এর মধ্যে কেন্দ্রে কেন্দ্রে প্রশ্ন পাঠাতে বিশেষ ধরনের খাম ব্যবহার করা হবে। যেটা দেখে বোঝা যাবে খামটি এর আগে কখনোই খোলা হয়নি।
দিপু মনি বলেন, পরীক্ষার হলের আশেপাশে ১৪৪ ধারা জারির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা থাকবে। গুজব রটনাকারীদের সনাক্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতিমধ্যে নজরদারি শুরু হয়ে গেছে। যারা আগেও এ কাজ করেছে বা প্রশ্নফাঁসে যুক্ত ছিল তাদের ব্যপারেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। মন্ত্রী বলেন, এবিষয়ে সচেতনতামূলক তথ্যগুলো গণমাধ্যমে প্রচার করা হবে। পরীক্ষা সংশ্লিষ্টরা ছাড়া কেউ কেন্দ্রে ঢুকতে পারবেন না। কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। শুধুমাত্র কেন্দ্র সচিব বাটন ফোন (ফিচার ফোন) ব্যবহার করতে পারবেন।
দিপু মনি বলেন, এমনকি পরিক্ষা সংশ্লিষ্ট অন্য কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে আমি অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রী ও গণমাধ্যমের সহযোগিতা চাই। ছাত্রছাত্রীরা পড়াশুনা না করে কোথায় প্রশ্নপত্র ফাঁস হচ্ছে তা কেউ জানার চেষ্টা করবে না। আমরা ছাত্র-ছাত্রী অভিববাকদের কাছে এই আশা করি।
তিনি বলেন, পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অব্যশই কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। যদি কোন কারনে দেরি হয় তাহলে তা কেন্দ্র প্রধানের রেজিষ্টারে লিপিবদ্ধ করে বোর্ডে পাঠাতে হবে। ২০১৮ সালে যেভাবে আমরা সফল হয়েছি সেই একইভাবে এবারো ইনশাল্লাহ আমরা সফল হবো। এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামন করাছি।
ফেসবুক কেন্দ্রীক নানা গুজব তৈরি হয় তাই বিটিআরসির প্রতি কোন নির্দেশনা আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, তথ্যমন্ত্রণালয়ের বিশেষ সেল এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে তারা দায়িত্ব পালন করবে।
উল্লেখ্য, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট ২১ লাখ ৩৭ হাজার ৩৬০জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। সারাদেশে মোট ৩৪৯২টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top