logo
news image

আইএবি-র আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম ও মহাসচিব অধ্যক্ষ ইউনুছ আহমাদ

প্রাপ্তি প্রসঙ্গ ডেস্ক।  ।  
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, মজলিসে শুরার সদস্যদেরকে দীন প্রতিষ্ঠায় আরো ব্যাপক ভুমিকা পালন করতে হবে। দীনের ওপর মজবুত থেকে সামনে অগ্রসর হলে বিজয় আসবেই। মুমিনের সফলতা কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না। তিনি বলেন, জনমত উপেক্ষা করে প্রশাসনকে দলীয়করনের মাধ্যমে ভোটডাকাতি করে কোন সরকার কখনো স্থায়ী হয়নি। তাই সরকারও স্থায়ী হতে পারবে না। আজ মানুষের নিরাপত্তা নেই, বাক স্বাধীনতা নেই। দেশের চিত্র প্রকাশিত হয় সংবাদপত্র ও সকল প্রচার মাধ্যমে। আজ গণমাধ্যমেরও স্বাধীনতা নেই। এমতাবস্থায় কোন বিবেকবান মানুষ বসে থাকতে পারে না।
বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ একটি মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। এতে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম, মাওলানা আবদুল আউয়াল, মাওলানা আবদুল হক আজাদ, আল্লামা নুরুল হুদা ফয়জী, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, আমিনুল ইসলাম, মাওলানা আবদুল কাদের প্রমুখ।
শুরার অধিবেশনে আমীর হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই এবং মহাসচিব হিসেবে অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন। সংগঠনের দ্বিবার্ষিক শুরার অধিবেশনে কেন্দ্রীয় মজলিশে আমেলার (কার্যনির্বাহী পরিষদ) ৪১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।
ইসলামী আন্দোলনের দিনব্যাপী শুরার অধিবেশন শুরু হয় সকাল ৯টায়। শুরার অধিবেশনে সারাদেশ থেকে প্রায় আড়াইশ সদস্য অংশ নেন। বিভিন্ন জেলা কমিটি ও জেলার কার্যক্রম নির্ধারণ করা হয়। দ্বিতীয় অধিবেশনে কেন্দ্রীয় কমিটির দ্বিবার্ষিক কর্ম পরিকল্পনা ও মজলিশে আমেলার আমির ও মহাসচিব নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আমির ও মহাসচিব নির্বাচিত হয়ে শুরার সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে মজলিশে আমেলার (কার্যনির্বাহী পরিষদ) ৪১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির পদ বণ্টন করেন।
পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা
আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই, নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম, মাওলানা আব্দুল আউয়াল, মাওলানা আব্দুল হক আজাদ, মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহ্মাদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েতউদ্দীন, হাফেজ মাওলানা নেয়ামতুল্লাহ্ আল-ফরিদী, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, সহকারী মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল কাদের, মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, কে এম আতিকুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, সহ-প্রচার সম্পাদক মুফতী দেলাওয়ার হোসাইন সাকী, দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, অর্থ সম্পাদক মোঃ হারুন অর রশীদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতী মোঃ হেমায়েতুল্লাহ, সহ-প্রশিক্ষণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুফতি সৈয়দ এসহাক মুহাম্মদ আবুল খায়ের, শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা নেছার উদ্দিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মোঃ লুৎফর রহমান শেখ, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট শওকত আলী হওলাদার, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ¦ জান্নাতুল ইসলাম, কৃষি ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ¦ আব্দুর রহমান, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শরিফুল ইসলাম, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জি এম রুহুল আমীন, মহিলা ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব মাওলানা মোঃ মকবুল হোসাইন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ নুরুল করীম, সংখ্যালঘু বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ বরকতুল্লাহ লতিফ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবুল কাশেম, সদস্য মাওলানা সৈয়দ মমতাজুল করীম (মোস্তাক), মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মুহাম্মদ মনির হোসেন, মাওলানা কেফায়েতুল্লাহ কাশফী এ্যাডভোকেট একে এম এরফান খান, অধ্যাপক ডাঃ মোয়াজ্জেম হোসাইন, মুহাম্মদ সেলিম মাহমুদ, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা খলিলুর রহমান।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top