logo
news image

টাকার জন্য হাত কাটলো পাওনাদার

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর।  ।  
প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী টাকা না পাওয়ায় আব্দুল আওয়াল (৩৬) নামের একজনকে কুপিয়ে ডান হাত প্রায় বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে সুমন (৩০) নামের এক যুবক। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় নাটোর সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের পারহালসা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনার পর আওয়ালকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে আনা হলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণজনিত কারণে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়ছে।
আব্দুল আওয়াল একই গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে ও সুমন কালাম মন্ডলের ছেলে।
স্থানীয় ও আওয়ালের পরিবার সূত্রে জানা যায়, আওয়াল ও সুমন চাকুররি জন্য বিদেশ গমনেচ্ছুদের বিভিন্ন এজন্সির মাধ্যমে বিদেশে পাঠাতেন। রাজন নামের পাশ্ববর্তী ধানুড়া গ্রামের এক যুবককে মাসছয়েক আগে সৌদি আরব পাঠায় তারা। চুক্তি অনুযায়ী, রাজনকে বিদেশে পাঠানোর জন্য সুমন আওয়ালের নিকট দস্তরী বাবদ ১০ হাজার টাকা দাবী করে আসছিলো। তবে আওয়াল টাকা না দিয়ে কালক্ষেপণ করে আসছিল।
এদিকে কাগজপত্র সংক্রান্ত বেশ কিছু জটিলতা দেয়া দেয়ায় রাজনের পরিবার প্রদত্ত টাকা ফেরত চাইলে বুধবার সকালে আওয়াল স্থানীয় কয়েকজন নিয়ে রাজনের বাড়িতে গিয়ে ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা ফেরত দিয়ে আসে। ফেরার পথে পাওনা টাকা আদায়ের জন্য সুমন তার চাচা পেয়ার আলীসহ কয়েকজনকে নিয়ে আওয়ালদের পথরোধ করে এবং বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে সুমন ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আওয়ালকে আঘাত করলে আওয়ালের ডান হাতে কোপ লেগে তা শরীর থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এসময় লোকজন এগিয়ে এলে সুমনরা সটকে পড়ে। স্থানীয়রা আওয়ালকে উদ্ধার করে প্রথমে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে এবং পরে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
নাটোর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ফরিদুল ইসলাম (তদন্ত) জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যভস্থা নেয়া হবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top