logo
news image

পাবনা-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থীর ওপর হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী (পাবনা)।  ।  
পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের ওপর হামলা চালিয়েছে দূর্বৃত্তরা। বুধবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় ঈশ্বরদীর আলহাজ্ব স্কুল মাঠ সংলগ্ন এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় হামলাকারীরা তাঁর গাড়ি ভাংচুর করে এবং তাঁকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে হাবিবকে উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখান থেকে পাবনা পরে অবস্থার অবণতি হলে তাঁকে হেলিকপ্টার যোগে ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জহুরুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ম্যাজিস্ট্রেটসহ পুলিশ ও বিজেপি ঘটনাস্থলে আহত হাবিবুরকে উদ্ধার করে। তাঁকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছিল। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হাবিব এ হামলার জন্য ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীদের দায়ী করেছেন। তবে হাবিবের এ দাবি অস্বীকার করে আওয়ামী লীগ বলেছে বিএনপির আভ্যন্তরীন দ্বন্দ্বের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে।
বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক আব্দুল বারী সরদার বলেন, গণসংযোগ ও পথসভার জন্য আলহাজ্ব স্কুল মাঠে বিএনপির নেতা-কর্মীরা জমায়েত হচ্ছিল। এ সময় অতর্কিতভাবে জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে হাবিবের ওপর হামলা চালানো হয়। হামলায় হাবিব ছাড়াও রিপন, বাচ্চু, সরদার আতাউর রহমান ও বীর হোসেন আহত হয়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মিন্টু হাবিবের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, যুবলীগ ও ছাত্রলীগকে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত করার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। হামলার ঘটনার জন্য তিনি বিএনপির অভ্যন্তরীন কোন্দলকে দায়ী করে বলেন, হাবিব বিএনপির উপজেলা কমিটি বাতিল ও পৌর কমিটি স্থগিত করায় বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মীরা তার উপর হামলা চালাতে পারে।
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আসমা খান জানান, হাবিবের পায়ে ৪টি ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ বাহাউদ্দিন ফারুকী হামলার ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, প্রকৃতপে কারা হামলা চালিয়েছে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে শহরে বিপুল
সংখ্যক, র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।
সহকারী রিটানিং অফিসার ও ইউএনও আহম্মেদ আলী ভূইয়া জানান, হামলার সাথে কারা জড়িত তদন্ত করা হচ্ছে। নির্বাচনের পরিবেশ ভাল রয়েছে। অপ্রত্যাশিতভাবে এই ঘটনা ঘটেছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top