logo
news image

দেশের ৬টি সংসদীয় আসনে ইভিএম ব্যবহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা।  ।  
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশের ৬টি সংসদীয় আসনের সবকটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে।
শনিবার (২৪ নভেম্বর) রাজধানীর আগারগাঁয়ে নির্বাচন ভবনে ৪০তম কমিশন সভা শেষে সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের একথা বলেন।
সচিব বলেন, ‘৩০০টি আসনের মধ্যে সিটি কর্পোরেশন ও আরবান এলাকার ৬টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। ২৮ নভেম্বর নির্বাচনের কমিশন ভবনে সাংবাদিকদের সামনে দৈবচয়নের মাধ্যমে এই ৬টি আসন নির্ধারণ করা হবে। এই ছয়টি আসনে পূর্ণ ইভিএম ব্যবহার করা হবে।’ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডিজিটাল ব্যবস্থাপনায় যেহেতু বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। বিভিন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করে সফলতা পাওয়া গেছে। সামনে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনাও আছে। সবদিক বিবেচনা করে কমিশন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ থেকে আর সরে আসার সুযোগ নেই।
এর আগে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার ইভিএম ব্যবহারের বিরোধীতা করেছিলেন। আজকের বৈঠকে উনার ভূমিকা কি ছিল? তিনি কি সম্মতি দিয়েছেন? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘তিনি আজকের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, এর বিরোধীতা করেননি। তাই ধরে নিতে হবে উনি সম্মতি দিয়েছেন।’ অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গড়ে যদি প্রত্যেকটি আসনে ১৫০টি কেন্দ্র হয়, তাহলে প্রায় ৯শ’ কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।
বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও হরয়ানির বিষয়ে আনীত অভিযোগগুলো আগামীকাল কমিশন বৈঠকে আলোচনা হবে বলে হেলালুদ্দীন আহমদ জানান। নিজের বিরুদ্ধে আনা বিএনপির অভিযোগ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। নির্বাচন কমিশনের সচিব একজন প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা। একটি ইন্ডিপেন্ডেন্ট বডিতে চাকরি করেন। তিনি নির্বাচন কমিশনের আদেশ ও নির্দেশ পালন করেন। কমিশনের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কাজ করার কোন সুযোগ নেই। নির্বাচন কমিশনের বাইরে গিয়ে কাজ করার তার আলাদা কোন সত্ত্বা নেই।’ তিনি বলেন, এটা সম্পূর্ণ একটি মিথ্যা প্রোপাগান্ডা। আমাকে বিতর্কিত করার জন্য, হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্য নিয়েই তারা এই কাজটি করেছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য