logo
news image

এক চিমটি ভালবাসা

মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা
এমনও দিন যায় যেদিন মনিকার বাবা ঘরে ফেরে না। ফিরলেও রাত ভোর হয়। বাঁশের ঝাড়ু বিক্রি করেই চলে তাদের সংসার। দুই মেয়ে মনিকা ও মিম। মনিকার বয়স চৌদ্দ অার মিমের পাঁচ। মনিকা দেখতে লাউ ডগাটির মত লকলকে। সতেজ ; সুন্দর ; নির্মল। বড়চাপড়া গ্রাম দুপচাচিয়ার জসিমের ছেলে মোহন (১৬) মনিকার দিকে লোভের দৃষ্টি দেয়। সুযোগ বুঝে ঝাপিয়ে পড়ে মনিকার উপর। ধর্ষণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। সে যাত্রায় মনিকা রক্ষা পায় বিস্ময়করভাবে। মনিকার বাবা থানায় মামলা করেন । মামলায় জসিমের ছেলে মোহন গ্রেফতার হয়। অপ্রাপ্ত বয়স হওয়ায় মোহনকে যশোর কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় মোহনের বাবা ছেলের অন্যায় দেখে শাসন না করে উল্টো মনিকার মাকে খুন করার পরিকল্পনা করে। একই গ্রামের বাচ্চু ওরফে পইতা ; অামিনুর ওরফে অানু এবং অাতিকুরকে সঙ্গে নিয়ে কয়েকবার গোপনে শলা পরামর্শ করে। ওদের সাথে চুক্তি হয় এই শর্তে ; অাফরোজাকে খুন করলে ওদের প্রত্যেককে এক লাখ করে টাকা দেবে মোহনের বাবা জসিম। ধর্ষণ চেস্টা মামলার সাক্ষী বাচ্চু ওরফে পইতার ছিলো মনিকাদের বাড়িতে অবাধ বিচরণ। টাকার লোভে সেই বাচ্চু ওরফে পইতাও জসিমের সাথে হাত মেলালো। গত ১২/০৯/২০১৮ রাত ১১ টায় মনিকার মাসহ সবাই যখন বেঘোরে ঘুমুচ্ছিলো তখনই ওরা তিনজন মিলে মনিকাদের ঘরের দরজার টিন কেটে ঘরে ঢুকে পড়ে। অাফরোজার স্বামী তখন পাশের গ্রাম পোড়াদহে ঝাড়ু বানানোর উপকরণ সংগ্রহে ব্যস্ত। বাচ্চু ওরফে পাইতা অাফরোজার পা ধরে শক্ত করে। জসিম মাথা চেপে ধরে অাতিকুর কন্ঠরোধ করে অর্থাৎ মুখ চেপে ধরে অার অামিনুর ধারালো ছুরি দিয়ে অাফরোজাকে জবাই করে। স্থানীয় লোকের মাধ্যমে পুলিশ ঘটনাটি জানতে পায়। দশ-বার ঘন্টার মধ্যে পুলিশ জসিম ও বাচ্চু ওরফে পইতাকে গ্রেফতার করে। অাফরোজার ছোট্ট মেয়ে মিম পুলিশকে নানা চমকপ্রদ তথ্য দেয়। কারন খুনের সময় মিমের ঘুম ভেঙে গিয়েছিল। মিম সব দেখেছিল।
সভ্যতা নামক এক প্রহসনের মহড়া চলছে যেন মানুষের ভিতর।ভোগ-বিলাসিতায়-লোভ- লালসায় ডুবে অাছে অাজকের সমাজ। হাজার হাজার মানুষ বাড়ছে কিন্তু বাড়ছেনা মানুষের প্রতি মানুষের মূল্যবোধ। পুলিশ ঘটনা দেখে। অাসামী গ্রেফতার করে জেলে পুরে দেয়। কিন্তু ফিরিয়ে দিতে পারে না  মানুষের জীবন। মানুষ ভিতর থেকে নির্মল হোক। স্যাকরিফাইস করতে শিখুক। এক চিমটি ভালোবাসা দিয়ে মানুষকে একবার কাছে টেনে দেখুন - পৃথিবীটা কত চমৎকার!! বাঁচাটা কত নির্মল ; একবার ভাবুনতো মানব জীবন কত অমূল্য??? অাসুন অামরা অপরাধ ঘটার অাগেই সচেতন হই। রক্ষা করি নিজের ও অন্যের জীবন । সমুদ্রসম প্রত্যাশা...... ।
* মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা, বিপিএম, পুলিশ সুপার, বগুড়া। 

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top