logo
news image

সিংড়ায় পল্লী বিদ্যুতের ভুতুড়ে বিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিংড়া (নাটোর)
নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভুতুড়ে বিলে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন সিংড়া উপজেলার কয়েকশ গ্রাহক। রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে সিংড়া পৌর শহরের বালুয়া বাসুয়া মহল্লায় বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দিতে গিয়ে আশকান আলী নামের এক মিটার রিডার বিক্ষুব্ধ জনতার হাতে লাঞ্ছিত হন। এদিকে তাকে উদ্ধারে গিয়ে গ্রাহকদের তোপের মুখে পড়েন সিংড়া পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের দুই কর্মকর্তা। পরে কর্তৃপক্ষ ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রোববার সিংড়া পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের মিটার রিডার কামরুল ইসলামের সহকারী আশকান আলী গ্রাহকদের বাড়িতে বিদ্যুৎ বিল পৌঁছে দিতে যান। কিন্তু ভুতুড়ে বিলে গ্রাহকরা বিস্মিত হয়ে সহকারী মিটার রিডার আশকান আলীর কাছে বিষয়টি জানতে চান। কিন্তু মিটার রিডার গ্রাহকদের কোনো সদুত্তর না দিয়ে উল্টো মেজাজ দেখান। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় তিনি পল্লী বিদ্যুৎ-এর কোনো মিটার রিডার নন। তিনি মিটার রিডার কামরুল ইসলামের পরিবর্তে ভাড়াটে হয়ে মিটার রিডারের কাজ করেন। এতে গ্রাহকরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে লাঞ্ছিত করে আটকে রাখে। পরে তাকে উদ্ধারে এসে মিটার রিডার কামরুল ইসলাম ও পল্লী বিদ্যুতের দুই কর্মকর্তা গ্রাহকদের তোপের মুখে পড়েন। পরে কর্তৃপক্ষ ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিলগুলো সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বালুয়া বাসুয়া গ্রামের গ্রাহক আবদুল মালেক বলেন, আমি পেশায় একজন রিকশাচালক। প্রতি মাসে আমার ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা বিদ্যুৎ বিল আসে। কিন্তু সেপ্টেম্বর মাসে সেই বিল ১ হাজার ৬৯৭ টাকা এসেছে। নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দোষী মিটার রিডারের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top